বৃহঃস্পতিবার ১২ই ডিসেম্বর ২০১৯ |

প্রবাসীদের সন্তানদের জন্য বৃত্তির নিয়ম ও আবেদনপত্র

গালফ বাংলা |  বৃহঃস্পতিবার ২২শে আগস্ট ২০১৯ সকাল ০৮:০৫:৩৯
প্রবাসীদের

যেসব বাংলাদেশি প্রবাসী বর্তমানে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কর্মরত রয়েছেন, বা যারা প্রবাসে কর্মী থাকা অবস্থায় মারা গেছেন, তাদের সন্তানদের জন্য শিক্ষাবৃত্তি দিচ্ছে বাংলাদেশ সরকার। তবে এই বৃত্তি কেবলমাত্র প্রবাসী কর্মীদের এমন সন্তানদের জন্য, যারা ২০১৯ সালে এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় পাশ করে দেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে একাদশ/সমমান অথবা ডিপ্লোমা শ্রেণিতে পড়াশোনা করছে। এঁদের মধ্য থেকে নির্ধারিতসংখ্যক শিক্ষার্থীকে বৃত্তি দেওয়া হবে।

আবেদনকারীকে অবশ্যই ২০১৯ সালের এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় জিপিএ ৪.৮০ প্রাপ্ত হতে হবে। তবে প্রবাসে মৃত কর্মীর সন্তানদের বেলায় জিপিএ ৪.০০ প্রাপ্ত হলেও আবেদন করা যাবে। পাশাপাশি আবেদনকারীকে অবশ্যই বর্তমানে দেশের যে কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে একাদশ/সমমান অথবা ডিপ্লোমা (১ম সেমিস্টার/বর্ষ) শ্রেণিতে অধ্যয়নরত থাকতে হবে।

বিএমইটির বহির্গমন ছাড়পত্র (ম্যানপাওয়ার ক্লিয়ারেন্স) নিয়ে যারা বিদেশে গেছেন, অথবা বিদেশে কর্মরত যেসব কর্মী দূতাবাস বা হাইকমিশনের মাধ্যমে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের মেম্বারশিপ গ্রহণ করেছেন, সেসব কর্মীর সন্তানরা শিক্ষাবৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারবে।

প্রবাসে মৃত্যুবরণকারী বাংলাদেশি কর্মীর পরিবার যারা ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের আর্থিক অনুদান পেয়েছে, তাদের সন্তানরাও এই বৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারবে। তবে কর্মীর বিএমইটির বহির্গমন ছাড়পত্র থাকতে হবে।

আবেদনকারী যদি বৃত্তির জন্য মনোনীত হন, তবে ওই শিক্ষার্থী একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণিতে পড়াকালে ২ বছর এবং ডিপ্লোমা শ্রেণিতে অধ্যয়নরত হলে চার বছর ধরে মাসিক দু হাজার টাকা করে বৃত্তি পাবেন। 

এই বৃত্তির পাশাপাশি বাৎসরিক এককালীন বই ও শিক্ষা উপকরণসহ অন্যান্য আনুষাঙ্গিক খরচ হিসেবে তিন হাজার পাঁচশত টাকা দেওয়া হবে।

আবেদনপত্রের সাথে যেসব কাগজ জমা দিতে হবে, সেগুলোর মধ্যে রয়েছে: 

আবেদনকারীর মা অথবা বাবা প্রবাসী কর্মী হওয়ার প্রমাণ। যেমন পাসপোর্ট, ভিসা এবং বিএমইটির ছাড়পত্র সম্বলিত পাসপোর্ট পাতা অথবা স্মার্ট কার্ড বা বিদেশে বাংলাদেশ দূতাবাসের মাধ্যমে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের মেম্বারশিপের ফটোকপি।

আবেদনকারীর মা অথবা বাবা প্রবাসে মৃত্যুবরণকারী হলে দূতাবাস কর্তৃক ইস্যু করা এনওসি ও মৃত্যুসনদ।

আরও লাগবে আবেদনকারী শিক্ষার্থীর দু কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি যা প্রতিষ্ঠানের প্রধান কর্তৃক সত্যায়িত এবং এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় মূল নম্বরপত্রের সত্যায়িত ফটোকপি।

এই বৃত্তির জন্য আবেদন পত্র ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের ওয়েবসাইট থেকে বিনামূল্যে সংগ্রহ করা যাবে। এরপর সেটি পূরণ করে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সহ আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর তারিখের মধ্যে সরাসরি বা ডাকযোগে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের ঠিকানায় পাঠাতে হবে।

আবেদনকারী শিক্ষার্থীর মায়ের বা মায়ের অনুপস্থিতিতে বাবার ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বার রকেট একাউন্টসহ অবশ্যই আবেদনপত্রে উল্লেখ করতে হবে।

এ বিষয়ে আরও বিস্তারিত জানতে প্রবাসবন্ধু কল সেন্টারের নাম্বারগুলোতে সকাল সাতটা থেকে রাত নয়টার মধ্যে যোগাযোগ করা যাবে (সরকারি ছুটির দিন ছাড়া)। 

প্রবাসবন্ধু কল সেন্টারের নাম্বার ০১৭৮৪ ৩৩৩ ৩৩৩, ০১৭৯৪ ৩৩৩ ৩৩৩, ০২-৯৩৩৪৮৮৮।

আবেদনপত্র পেতে হলে নিচের লিংকে ক্লিক করুন

প্রবাসী কর্মীর সন্তানদের জন্য বৃত্তির আবেদন পত্র

পুরো নোটিশটি পড়তে হলে ক্লিক করুন এখানে: Notice_SSC_2019.pdf

বিশেষ ডেস্ক

সংশ্লিষ্ট খবর